খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অব্যবস্থাপনার কারনেই সংকট

Scream
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

চালের চাহিদা ও জোগানে ভারসাম্য রাখতে নিজস্ব মজুদ খাদ্য মন্ত্রণালয়ের গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার। চলতি বোরো মৌসুমে চাল সংগ্রহে এখন পর্যন্ত ব্যর্থ মন্ত্রণালয়। সংগ্রহ নিশ্চিত না করেই ছেড়ে দিয়েছে নিজস্ব মজুদ। বিষয়টি বুঝতে পেরে এর সুযোগ নিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। আইনে চাল মজুদের সুনির্দিষ্ট পরিমাণ ও সময় নির্ধারিত থাকলেও তা পরিপালনে ব্যবসায়ীদের বাধ্য করতে পারেনি খাদ্য মন্ত্রণালয়। ব্যবস্থাপনাগত এসব ভুলেই চালের বাজারে সংকট সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।
খাদ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, চালের মজুদ এখন সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে এসেছে। ১৫ জুন পর্যন্ত সরকারি গুদামে খাদ্যশস্যের মোট মজুদ ছিল ৪ লাখ ৯৬ হাজার টন। এর মধ্যে চালের মজুদ ১ লাখ ৯০ হাজার টন। অথচ গত বছরের একই সময়ে সরকারের গুদামে মজুদ আকারে চাল ছিল ৬ লাখ ৬ হাজার টন।
খাদ্য মন্ত্রণালয় তার নিজস্ব মজুদ ছেড়ে দিলেও মিলারদের কাছ থেকে কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় সংগ্রহ করতে পারেনি। চলতি বোরো মৌসুমে ৩৪ টাকা দরে আট লাখ টন চাল কেনার পরিকল্পনা গ্রহণ করে খাদ্য মন্ত্রণালয়। গত ২ মে শুরু হওয়া এ কর্মসূচির আওতায় ১৫ জুন পর্যন্ত চাল (সিদ্ধ ও আতপ) সংগ্রহ হয়েছে মাত্র ৩২ হাজার ২৯৬ টন। এতে টান পড়েছে সরকারের মজুদে।
আমদানির মাধ্যমে মজুদ বাড়ানোর কথা বলা হলেও অভ্যন্তরীণ চাল সংগ্রহ মোটেই সন্তোষজনক নয়। দেশের বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ৩১ আগস্ট সরকারের চাল সংগ্রহ কার্যক্রম শেষ হওয়ার কথা থাকলেও মিলারদের অনেকেই এখনো চুক্তি করেননি। চুক্তি করলেও লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী চাল দিতে আগ্রহীও নন অনেকে।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন ও চলমান কার্যক্রমে চাল বিতরণ করতে হয়েছে। ফলে চালের মজুদ সর্বনিম্ন পর্যায়ে চলে এসেছে। কারণ চাল উৎপাদন, আমদানি ও মজুদ ব্যবস্থাপনার মধ্যে বড় ধরনের গরমিলের কারণেই এ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করেন বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) সাবেক গবেষণা পরিচালক ড. এম আসাদুজ্জামান। তিনি বলেন, কৃষকের স্বার্থে আমদানিকে যেহেতু নিরুৎসাহিত করা হয়েছে, তাই বাকি দুটি বিষয়ে সঠিক ব্যবস্থাপনা থাকতে হবে। কৃষি মন্ত্রণালয় যেহেতু বলছে, উৎপাদন খুব বেশি কমেনি, তাহলে ধরে নিতে হবে, সরকারের মজুদ ব্যবস্থাপনার সঠিক প্রয়োগ না হওয়ায় বাজারে সরবরাহ ঘাটতি দেখা দিয়েছে, যার পুরো দায়িত্ব খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ওপর বর্তায়। চাল উৎপাদন যদি কমার তথ্যও থাকে, তাহলে তার জন্য কার্যকর পদক্ষেপের প্রয়োজন ছিল। সেটিও নিতে পারেনি খাদ্য মন্ত্রণালয়।
তবে চাল আমদানিতে শুল্কারোপ সম্পূর্ণ প্রত্যাহার না করে কিছুটা কমানো যৌক্তিক হবে জানিয়ে তিনি বলেন, মজুদ বাড়াতে আমদানি কিংবা সংগ্রহ কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। সরকারি গুদামে সবসময় ১০-১২ লাখ টন চাল মজুদ না রাখলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সমাজ ও রাজনীতি

শিল্প-সাহিত্য

ক্রীড়া

এবার আকাশে ওড়ার পালা

ফুটবলে আশার আলো মেয়েরা। সেই আলোটা দেখাচ্ছে কৃষ্ণা-সানজিদারা।…

ফটো গ্যালারি

বাবু বরকতউল্লাহ'র ফটোগ্রাফি

ভিডিও গ্যালারি

ফিচার

সৌদি মরুভূমিতে বাংলাদেশিদের মরুদ্যান

মরুভূমির দেশ সৌদি আরব। ঊষর মরুর ধূসর বুকেই কিনা গড়ে উঠেছে বাংলাদেশের সবুজের জয়গান! মরুভূমির ধুলাবালির মাঝে গড়ে উঠছে কৃষিখামার।…

বিনোদন

বাংলাদেশি মেয়েরা হবে মিস ওয়ার্ল্ড!

এবার বাংলাদেশি মেয়েরা অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছে মিস ওয়ার্ড প্রতিযোগিতায়। চলতি বছর ১৮ নভেম্বর চীনে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার…

বাজার ও অর্থনীতি

সঞ্চয়পত্র বিক্রিতে সরকারের রেকর্ড

সরকারের সঞ্চয়পত্র বিক্রি রেকর্ড ছাড়িয়েছে। সদ্য সমাপ্ত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৫২ হাজার ৩২৭ কোটি টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি করেছে সরকার, যা এ…

রাজধানী

বইয়ের জগৎ

রাতের প্রতিপক্ষ একটি বাতি

অনাত্মীয় সুতোদোর টানাপোড়েনে তৈরি যে ঘনবদ্ধ কাপড় তা আপনার দেহকে ডেকে রাখবে সত্যি কিন্তু মনের আবেগকে না। অন্যের কাছে আত্মীয়হীন…

ইভেন্ট